Home / অপরাধ / বেপরোয়া জামাল শরীফ জমি দখলে হয়ে উঠেছে মরিয়া

বেপরোয়া জামাল শরীফ জমি দখলে হয়ে উঠেছে মরিয়া

বরিশাল সদর, মোঃজিহান ইসলাম

রিশাল সদর উপজেলার ৩নংচরবাড়িয়া ইউনিয়ানে সাপানিয়া এলাকায় জমি কিনে বিপাকে ক্রেতা। স্থানীয় সন্ত্রাসী জামাল শরীফ জমি নিজের দাবী করে ক্রেতাদের উপর হামলা করেছে। ক্রেতাকে মারধরসহ তার ভাইকে কুপিয়ে জখম করেছে।

গত ১৬ মে হামলা ও কুপিয়ে জখমের ঘটনা ঘটানো হয়। এতে গুরুতর আহত আজমল মীরকে শেবাচিম হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এ ঘটনায় জমির ক্রেতা হাদিস মীরের বড় ভাই মীর আল আমিন বাদী হয়ে কাউনিয়া থানায় মামলা করেছে।

মামলা সুত্রে জানা গেছে, সাপানিয়া এলাকায় নুরে আলমের কাছ থেকে হাদিস মীর ১০ শতাংশ জমি ক্রয় করে ভোগ দখলে রয়েছেন। কিন্তু জামাল শরীফ ওই জমি নিজের বলে দাবী করে। গত ১৬ মে জমির মালিক ভবন নির্মান সামগ্রী রাখতে গেলে জামাল শরীফ ও তার লোকজন বাধা দেয়। এর প্রতিবাদ করলে গেলে এক পর্যায়ে বাদীর বাবা আবদুল খালেক মীরকে মারধর শুরু করে। বাবাকে রক্ষায় এগিয়ে গেলে বাদী আল আমিনকে মারধর করে ও ছোট ভাই আজমল মীরকে কুপিয়ে জখম করে।

বাদীপক্ষ জানিয়েছে, বৈধ সকল প্রক্রিয়া সম্পন্ন করে জমি ক্রয় করে দখলেও রয়েছেন। সেই জমির মালিকানা অন্য কেউ দাবী করলে তা ভুমিদস্যুতা ছাড়া আর কিছুই না। প্রতিপক্ষরা আমার বাবা ভাইকে মারধর করেছে। আবার ঘটনা ভিন্ন খাতে প্রবাহিত করার জন্য আমার বিরুদ্ধে নানা অপ প্রচারও করছে।

বাদী পক্ষ জানিয়েছে, জামাল শরীফ মুলাদী উপজেলা যুব উন্নয়ন কর্মকর্তার কার্যালয়ের একজন হিসাব সহকারী কাম কম্পিউটার পদে চাকুরীরত।
নূর-ই-আলম তার জমি জামাল শরীফ কে না জানিয়ে হাদিস মীর এর কাছে বিক্রয় করে। এতে জামাল শরীফের স্বার্থে ব্যাঘাত ঘটে। এরপর থেকে জামাল শরীফ হাদিস মীরের পরিবারের সাথে জুলুম অত্যাচার শুরু করে।

এছাড়াও ২০১৮ সালে বরিশাল অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতে একটি মামলা দায়ের করেছিলো জামাল শরীফ। আদালতের নির্দেশে মামলার তদন্ত প্রতিবেদন দেখে অতিরিক্ত বরিশাল জেলা জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট জামাল শরীফের মামলা খারিজ করে দেয়।

পাশাপাশি কাউনিয়া থানাকে শান্তি-শৃঙ্খলা বজায় রাখতে নির্দেশ দেন।
এ ব্যাপারে কাউনিয়া থানার অফিসার্স ইনচার্জ আজিমুল করিম বলেন, তারিকুল ইসলাম হাদিস মীরের ক্রয় করা জমি জামাল শরীফ দখল চালানোর চেষ্টা করে ব্যর্থ হয়। হাদিস মীরের দুই ভাইকে আহত করে।

ওই ঘটনায় ইতিমধ্যে এজাহার ভুক্ত ৩ জন আসামীকে গ্রেফতার করা হয়েছে। বর্তমানে পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে এবং এলাকায় আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে সব ধরনের ব্যবস্থা গ্রহন করা হয়েছে।
উল্লেখ্য, জামাল শরীফের অত্যাচারে এলাকাবাসী অতিষ্ট হলেও ভয়ে কেউ মুখ খুলতে সাহস পায় না।

About BD LIVE TV LTD

Check Also

আদমদীঘিতে ২১ বস্তা চাল উদ্ধার, আসামিরা ধরাছোঁয়ার বাইরে

আদমদীঘি (বগুড়া) প্রতিনিধি বগুড়ার আদমদীঘিতে ২১ বস্তা চাল উদ্ধারের ঘটনায় মামলায় আসামিদের ১৯ দিনেও গ্রেফতার …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *